ARTICLES || ইকরা

English

India’s North-East: a War-and-Peace Painting

A stable society is the one, which maintains over time its features, like its heritage — language, literature, culture etc. — at a certain level. A fashionable alternative term of stability is sustainability. Sustainability has two components — resistance to changes and resilience to a stable state. The agent of change is disturbance or perturbation. When  disturbance is beyond certain threshold, society transits to an alternative stable state.

Let us discuss heritage and sustainability in the context of conflict and confluence of cultures and languages in Northeast, I recollect the famous painting of Pablo Picasso – War and Peace… War symbolizes aggression – cultural, linguistic, and economical – all forms of imperialism. The end result is instability in the society. Homogenization in terms of language, culture and religious faith is the main motive behind such aggression. Peace symbolizes accommodation – accommodation of diverse cultures, faiths, rituals, languages (major and minor), and literature with equal dignity and equitable space… Read more>>  PPT

Earlier version was published in The Thumb Print Magazine.

Some Thoughts on Archiving Manuscripts of Ancient Assam

In Assam, we have a huge corpus of medieval manuscripts written mainly on Sachipat. Medieval manuscripts are important sources of tradition, history and culture. We need to preserve, organize and make them available to the world. These cultural objects are available in different media, like parchment, vellum, palm leaves, Sachipat, paper etc, encoded in different languages and scripts. Many technologies have evolved over ages to archive these cultural objects.  Information and Communication Technology (ICT) claims to be the most potential modern technology for such archival activities. ICT is not a panacea for all problems in archival process. ICT has tremendous potential as a candidate solution for archiving but at the same time it has its own limitations…Read more>>

[It’s an excerpt of the invited talk in a workshop on archiving in the Centre for Assamese Studies, Tezpur University]

Rabindranath Tagore and the Bishnupriya Manipuri Community

Tagore has created a huge corpus of literature. His creations, encoded in Bengali, a regional language, emanated from Bengal, reached the people of every corner of India and of the whole world crossing all boundaries. In true sense, Tagore is a Vishvakabi, a poet who took off his flight of creation from the soil of Bengal, crossed the layers of syntax and semantic and ultimately dwelled in a nandonic space. Tagore’s thought process influenced and enriched pan India art, literature and culture in general and the North-East India in particular. Tagore even influenced the thought processes and hence the art, culture and literature of a little-known microscopic minority community of North-East, the Bishnupriya Manipuri…Tagore’s creations influenced the culture and literature of North-East and at the same time creations of nature and of the North-East culture influenced the thought process of Tagore. It’s a symbiotic relation- a bridge. The present article is a brief account of this symbiosis…  Read more>>

বিষ্ণুপ্রিয়া মণিপুরী

কথা অমৃত সমান

সাহিত্য বার literature শব্দ দ্বিয়গির অর্থহান আকহান অইলেও ব্যাপ্তিহানাৎ নিয়াম-কম এসাদে বারিক ভেদ আহান আছে বুলিয়া পণ্ডিতে মাৎতারা। ইংরাজি literature শব্দ এগই বর্ণমালাল ইকরা নান্দনিক প্রকাশকল্প, মূলতঃ কবিতা, গীত, গল্প, উপন্যাস আদি শিল্পরে পুল্লাপে বুঝার। সাহিত্য শব্দ এগই বর্ণমালাল ইকরা বার থতাল টটরা দ্বিয়জাতর ঔ শিল্পরে বুঝার। অর্থাৎ সাহিত্য শব্দ এগর ব্যাপ্তিহান literature শব্দ এগরাংত নিয়াম। কথাসাহিত্য বুলতে সৃষ্টিশীল কল্পনাৎত সৃষ্টি অর ঘটনা, চরিত্র, কর্মকান্ড বার কথাবার্তা আদিল হঙর শিল্প ঔতারে বিশেষ করিয়া বুঝার। ভারতর নানার ভাষাৎ এতারে কথাসাহিত্য বা বাট্টি করে কথা বুলতারা। কথা এতা হাবি মারলর হাবি চিরির মানুরে যুগে যুগে আনন্দ দিয়া আহের। ঔহানে মানুৱে কথা এতা নিয়াম ঠিক পেইতারা, কথা হুনানির সালে খৌরাংল বাছেয়া থাইতারা। ঔহানলহে মাৎতারানাই – কথা অমৃত সমান।

আমার ঠারে কথা এতারে য়ারি বুলিয়ার। লোককথা, গল্প, উপন্যাস হাবিরে আমি পুল্লাপে য়ারি বুলিয়ার। আধুনিক সাহিত্যর রীতি-নীতি ইলয়া আজিকালি ইকরানি অর য়ারি আকতারে গল্প বার আরাক আকতারে উপন্যাস বুলানি অকরলাংতা। আমারাংতে হাবি য়ারি। য়ারি এতা কুম্বাকা জরম অছেতা? ডাঙর সুৱাল আহান। সঠিক জুৱাবহান দেনি নিয়াম চিল। মানু যেবাকা গুহাৎ আছিলা ঔবাকা বাপক মালক শিকারেৎত আলয়া আহিলে শৌসুমারাই কিতাকিতা দেখলা, কিসাদে শিকার করলা হারপানির খৌরাঙে তানুরে কলকরিয়া ধরলা। জিগর চারিবেদে বয়া হেদে হেদে গুহাবাসি ইমাবাবার থতাৎত জরম অইল পাউরি পইলা য়ারি। মুঙর কনাক শৌগির মনহানি পাক সালকরিয়া ফরদিলা কল্পনার হাকহানাৎ। ঔ কনাক শৌ ঔতা আকদিন বুজন অইলা। বুজনরাংত হুনা য়ারি ঔতা তানু পিছেকার চিরিরাং দিলা। এসাদে থতাৎত থতাৎ য়ারি এতা চিরি লালয়া আমারাং ফৌঅইলহা- বাহার পাতা বার টেম্পাকর য়ারি, আপাঙর য়ারি, হিনচাপার য়ারি আদি। আজিও ঔহানেছাৎ য়ারি বুললে য়ারিআলাগরে বেরি দিয়া মিকুপে পুলইতারা কনাক শৌ। মাতানিও কিসাদে, নামাতিয়াও নার। য়ারি বুললে আমি বুজনর মনর ভিতরে ঘুমজিয়া আছি ঔ গুহাবাসি কনাক শৌগি খাংতা হজাক অয়া আজিও চংকরে ফালদিয়া মুংহানাৎ বহিতারা…  আরাকৌ পাকরিক>>

বিষ্ণুপ্রিয়া মণিপুরী বানানর নীতি বার রাজনীতি

পৃথিবীর ভাষা এতার বানানর নীতি হৎকরিয়া চেইলে দেহিয়ার বানান মূলতঃ দ্বি নমুনার – ঠাই বানান (shallow orthography) বার লু বানান (deep orthography)। ঠাই বানানে উচ্চারণ বার বানানর পার্থক্যহান একেবারে কম। ধ্বনিমৌলিক বার রূপমৌলিক বানান ঠাই বানান। সংস্কৃত বার জার্মান বানান ঠাই। লু বানানে উচ্চারণ বার বানানর পার্থক্যহান নিয়াম। পৃথিবীর নিয়ামপারা ভাষার বানান লু। ইংরাজি বার ফরাসি ভাষার বানান লু। এবাকা চলেছে বিষ্ণুপ্রিয়া মণিপুরী বানানর নীতিও লু। ভাষা, বানান বার সমাজ সম্বন্ধে বিস্তৃত হারপানিরকা Mark Sebbaর Spelling and Society লেরিক ঔহান পাকরিয়া চেইক। হবে হঙয়া আহের ভাষা আহানর বানানর সমস্যা বার রাজনীতির গজেও লেরিক এহানাৎ আলোচনা করানি অছে।
বানানরে হিন্দিৎ ৱর্তনী, গুজরাঠিৎ জোড়ানি, মারাঠিৎ শব্দলেখন, পাঞ্জাবীৎ সপাইলিগা, বার মাগধীজাত বাংলা, অসমীয়া বার বিষ্ণুপ্রিয়া মণিপুরী এ তিনোহান ভাষাৎ ইমে ‘বানান’ বুলতারা। ওড়িয়াৎ কিন্তু ‘বনান’ বুলতারা।

যৌগিক কালে ক্রিয়ার রূপ কতোহানাৎ মূল ধাতুর লগে ‘ইয়া’ ‘ইতে’ আদি প্রত্যয় যোগ অনার পিছে ‘আছ্‌’ বা ‘থাক্‌’ ধাতু যোগ অয়া ক্রিয়াপদ গঠন করের। ঔতার পিছে মৌলিক ধাতুর সাদানে প্রত্যয় বার বিভক্তি যোগ অর। [৪] যেমন –
ঘটমান বর্তমান
কর্+ইতে+আছ্+ই = করিতে-আছি > করিতেছি > করছি (বাংলা) [৪]
কর্‌+ইয়া+আছ্‌+উ = করি আছু (অসমীয়া)
কর্‌+ইয়া+আছ্‌+উ = করিয়া আছু (বিষ্ণুপ্রিয়া মণিপুরী) [৫]
পুরাঘটিত বর্তমান
√কর্+ইয়া+√আছ্‌+ই = করিয়াছি > করেছি (বাংলা) [৪]
√কর্‌+ইয়া+√আছ্‌+উ = করিয়াছু > করিছু (অসমীয়া)
√কর+ইয়া+√আছ্‌+উ =করিয়াছু > করেছু (বিষ্ণুপ্রিয়া মণিপুরী) [৫]
পুরাঘটিত অতীত
√কর্‌+ইয়া+√আছ্‌+ইল্‌+আম্‌ = করিয়াছিলাম > করেছিলাম (বাংলা) [৪]
√কর্‌+ইয়া+√আছ্‌+ইল্‌+উ = করিয়াছিলু > করিছিলু (অসমীয়া)
√কর্‌+ইয়া+√আছ্‌+ইল্‌+উ = করিয়াছিলু > করেছিলু (বিষ্ণুপ্রিয়া মণিপুরী) [৫]
ঘটমান অতীত
√কর্‌+ইতে+√আছ্‌+ইল্‌+আম্‌ = করিতেছিলাম > করতেছিলাম (বাংলা) [৪]
√কর্‌+ইয়া+√আছ্‌+ইল্‌+উ = করি আছিলু (অসমীয়া)
√কর্‌+ইয়া+√আছ্‌+ইল্‌+উ = করিয়া আছিলু (বিষ্ণুপ্রিয়া মণিপুরী) [৫]
গজর উদাহরণ এহানিৎত আমি স্পষ্ট দেহিয়ার ভাষাহানি তঙাল অইলেও করেছি, করিছু, করেছু, করেছিলাম, করিছিলু, করেছিলু ইত্যাদি এতা সমন্ধীয় শব্দ (cognate words)। অর্থাৎ, এতা হাবি শব্দ আলাদা আলাদা ভাষার শব্দ অইলেও ব্যুৎপত্তিগত মূল আকতা । ঔহানে এ তিনোহান ভাষার ক্রিয়ার রূপ এহানিৎ প্রত্যয় বারা বিভক্তিৎ খানি আহান তঙাল থাইলেও ধাতুগিতে একেবারে আকতা – √কর্‌ বার √আছ্‌। এবাকাতে ভাষাহানি তঙাল অইলেও এ সমন্ধীয় শব্দ এগিৎ আকপেইৎ √আস্‌ বার আকপেইৎ √আছ্‌ ধাতু অনাই নুৱারের, অর্থাৎ এপেইৎ ধাতুগ ‘আছ্’ (< অচ্ছ)। উচ্চারণ বার ব্যুৎপত্তি ইলয়া লু বানান অইলে ‘আছ’ দেনাই, অর্থাৎ ক্রিয়াৎ ‘ছ’-বর্ণ ব্যবহারেই যুক্তিযুক্ত। সারমর্মহান, আমি লু বানান ইলয়ার হান্তে ক্রিয়াৎ ছ-বর্ণ ব্যবহার সংকল্পহান, বিকল্প নেই। বিকল্প স-বর্ণ ব্যবহার এহান রাজনীতিহান। সমাজে কালীপ্রসাদর গ্রহণযোগ্যতা থিংকরানিরকা বার বাংলা বার অসমিয়াৎত দূরেইহান দেহুৱানির মানসল নিকুলেছে প্রস্তাবহান। সংস্কৃত ‘অস্‌’ বার ‘আস্‌’ ধাতুৎত ব্যুৎপত্তি দেহানি ঔহান, অবাস্তব প্রস্তাব ঔহানরে ভাষাতত্ত্বর গড়েইপা যুক্তি আহানর গজে উবা করানির বৃথা প্রয়াসহান।

বাঙালী সমাজে ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর গিরকর জরম যুগান্তকারি ঘটনাহান। গিরক বিদ্যার সাগরগ, ঔহানে বিদ্যা সাগর। সংস্কৃত পণ্ডিত ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরে ঔদিন দিনে বাংলা ভাষা এহানর বিজ্ঞানসম্মত মূল কাঠামহান হংকরে দেছিল আরো আজি বাংলা ভাষার এ অবয়ব এহান। পিছে ড০ সুনীতি কুমার চট্টোপাধ্যায়, ড০ সুকুমার সেন আদি ভাষাতত্ত্ববিদে ঔ কাঠামর গজে নিজর গবেষণালব্ধ জ্ঞান নাপকরে দিয়া পরিপূর্ণ করে দিলাতা। ঠিক ঔসাদে কালীপ্রসাদ সিংহ গিরক বিষ্ণুপ্রিয়া মণিপুরী সমাজে জরম অয়া এ ভাষা এহানরে গিরকর গবেষণালব্ধ জ্ঞানল বৈজ্ঞানিক রূপ দিল…  ঔহানে আজি মুক্তকণ্ঠে চিকারি দিয়া মি মাতানি মনাউরি – কালীপ্রসাদ সিংহ বিষ্ণুপ্রিয়া মণিপুরী সমাজর ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর।

কবিয়ে সাহিত্যিকে আজীবন জীবন-সত্যর আরাধনা করতারাতা গীতি, কবিতা গল্প আদি সৃষ্টি নিজর ইমাঠারল শুদ্ধ রূপে শুদ্ধ মনে কাৎকরিয়া। হারনাপেয়া অইলেতে কিৎতাও নেই, হারপা হারপাও অশুদ্ধ রূপল আরাধনা করানি, সাহিত্য সাধনা করানি নীতিবিরোদ্ধ কামহান। ইমাঠার এহানরে আমার ইমাগ নিংকরিয়া সাহিত্যল সেবা করানিহান অইলেতে হারপা হারপাও কবি আগই সাহিত্যিক আগই অশুদ্ধ বানানল ইকরানি এহান ইমা ঔগরে শেং কুপাংহানর পটা মাং কুপাং আহানাৎ এইরুক কাৎকরানিহান পারা অর। ডিগল অনুসন্ধানর পিছেদে মি হারপেইলু ক্রিয়াৎ ছ-বর্ণ ব্যবহার এহানেই শুদ্ধ বার লু রূপহান, স-বর্ণ ব্যবহার অশুদ্ধ রূপহান…  আরাকৌ পাকরিক>>

বিষ্ণুপ্রিয়া মণিপুরী ভাষাতত্ত্ব বার জাতির জনক ডঃ কালীপ্রসাদ সিংহ

ডঃ কালীপ্রসাদ সিংহ গিরক নিয়াম উচ্চমানর শিক্ষাবিদ বার গবেষক আগ। শিলচরর কাদার কচুধরম নাঙর গাঙে, নিয়াম সাধারণ পরিবার আহানাৎ অজা বাবাইসেনা সিংহর ঔরসে বার ইমাগো দেবীর উরে ১৯৩৭ ইংরাজির ৩ জানুৱারি তারিখে ঋষিকল্প জ্ঞানী গিরক এগ জরম অছিল, বার ২০১১ ইংরাজির ২ জুন তারিখে মুটামুটি ৭৫ বছর বয়সে এ গাং এহানর পবিত্র মাটিৎ গিরক দৌ অছিল। এ সীমিত জীবনকাল এহানাৎ গিরকে ভাষাতত্ত্ব, ভারতীয় দর্শন বার বিষ্ণুপ্রিয়া মণিপুরী সাহিত্যৎ যে অমূল্য অবদান দিয়া গেলগা ঔহানর সঠিক মূল্যায়ণ করতে সমাজ এহানরতা আরাকৌ শতাব্দি আহান লাগতই।

আন্তর্জাতিক স্তরে বিষ্ণুপ্রিয়া মণিপুরী ভাষার এবাকার প্রতিষ্ঠিত মূল মতহানি এহানি-
১) বিষ্ণুপ্রিয়া মণিপুরী ভাষা এহান স্বতন্ত্র ভাষা আহান। ২) বিষ্ণুপ্রিয়া মণিপুরী ভাষা এহান সংস্কৃতেৎত মাগধী প্রাকৃত বার অপভ্রংশ অয়া আজিকার রূপ এহানাৎ আহেছেতা…  আর্য ভাষা এতারে মূলতঃ তিনহান পরলে ভাগ করেছি- (১) আদি আর্য ভাষা (খ্রী পূ ১৫০০- খ্রী পূ ৬০০) (২) মধ্য আর্য ভাষা (খ্রী পূ ৬০০ – খ্রী ১০০০) বার (৩) নব্য আর্য ভাষা (খ্রী ১০০০ – এবাকা পেয়া)। আদি আর্য ভাষারমা পইলা পেয়ার বৈদিক থাংনাৎ সংস্কৃত। মধ্য আর্য ভাষারমা ঔসাদে পেয়ার পালি, প্রাকৃত বার অপভ্রংশ। এবাকার আর্য ভাষা এতা, যেমন অসমীয়া, বাংলা, বিষ্ণুপ্রিয়া মণিপুরী, হিন্দি, গুজরাটি আদি হাবি পরেরতা নব্য আর্য ভাষারমা। এ ভাষা এতা হাবি সংস্কৃতৎত প্রাকৃত অপভ্রংশ অয়া আজিকার রূপ এহানাৎ আহেছেতা। অসমীয়া, বাংলা, উড়িয়া, বিহারি, মৈথিলী এতা সংস্কৃতৎত মাগধী প্রাকৃত অয়া আহেছেতা। বিষ্ণুপ্রিয়া মণিপুরী ভাষা এহানও মাগধী প্রাকৃত অয়া আহেছেহান। এহান আন্তর্জাতিক স্তরে ভাষাতত্ত্বর স্বীকৃত মতহান।

১৯৭৬ ইংরাজিৎ পুস্তিকা আহান প্রকাশ করিয়া অধ্যাপক বীরেন্দ্র কুমার সিংহ গিরকে বিষ্ণুপ্রিয়া মণিপুরী ভাষা এহান শৌরসেনী প্রাকৃতৎত আহেছেহান মাগধীৎত নাগই বুলিয়া সমাজে নুৱা বিতর্ক আহান অকরে দিল কিন্তু আজিপেয়া গবেষণালব্ধ কুনো সিদ্ধান্ত আহান দিয়া নুৱারল। পণ্ডিত গিরকে এ বিতর্ক এহানর সমাপ্তি আহান ঘোষণা করিয়া হরিহরি বোলা দিয়া সমাজহানরে তিলকরে দেনি নুৱারল। The Bishnupriya Manipuris and Their Language পুস্তিকা ঔহানাৎ এ ব্যাপারে গিরকে যে দুহান মত ব্যক্ত করেছে ঔহানি আগে মাৎলু যে-
(১) মহাভারতর অশ্বমেধ যজ্ঞর পিছে বভ্রুবাহনর লগে আহেছিলা বামন, বিষ্ণুভক্ত, উচ্চবর্ণর রাজসৈন্য ঔতাই বিষ্ণুপ্রিয়ার পূর্বপুরুষ।
(২) হস্তিনা, কুরু, পাঞ্চাল আদি লয়াৎ চলেছিল ভাষাহান শৌরসেনী প্রাকৃত। ঔহানে বিষ্ণুপ্রিয়া মণিপুরী ভাষা এহান শৌরসেনীৎত আহেছেহান, মাগধীৎত নাগই।

মহাভারতর যুদ্ধহান অয়া থাইলে কুম্বাকা অছিল? ডঃ রাজা রামান্নাই মাতেছিলতা আকাশ এহানেই হাবিৎ চুম ঘড়িগ। মহাভারতে বর্ণনা করেছি গ্রহতেরার স্থান, গ্রহণ আদি জ্যোতির্বিজ্ঞানল বিচার করলে পানা অরতা আনুমানিক খ্রী পূ ৩০০০ সন। কচ্ছ উপসাগরে সাগরর তলেৎত উদ্ধার অছে শ্রীকৃষ্ণর দ্বারকার ধ্বংসাবশেষর পুরাতাত্ত্বিক বিশ্লেষণ মতে আনুমানিক খ্রী পূ ২০০০ সন। এগদে বার ইতিহাসে মাতেরতাই আনুমানিক খ্রী পূ ১৫০০ কিতাৎ আর্য এতা ভারতে আহেছি, যেহান এবাকাও বিতর্কিত। ভাষাতত্ত্ব মতে ঔহান বৈদিক ভাষার মানে আদি-আর্য ভাষার কালহানও খ্রী পূ ১৫০০। ঔতাইলে, বভ্রুবাহনর লগে আহেছিলা ঔতা হয় বৈদিক নাইলে সংস্কৃত টটরা থাইবা। অর্থাৎ বিষ্ণুপ্রিয়া মণিপুরী এহান মাগধী, শৌরসেনী বা কুনো প্রাকৃতর মাধ্যমে নাগই তুপ্সাম সংস্কৃতেৎত আহেছে একমাত্র আর্য ভাষাহান। ঔতাইলে পৃথিবীর ভাষাতত্ত্ববিদ কিয়া আজিপেয়া এ ভাষাল গবেষণা করানিরকা উবুরিগ নাছিতা? বভ্রুবাহনর লগে আহেছিলা ঔতা শৌরসেনী প্রাকৃত ভাষাভাষি অথাইলেতে মহাভারতর যুদ্ধহান খ্রী পূ ৬০০ সনর পিছে অথাইব। কিয়া বুল্লে, প্রাকৃত, পালি অপভ্রংশ এরে মধ্য-আর্য ভাষা হঙছেতা খ্রী পূ ৬০০ সনর পিছে বার খ্রী ১০০০ সনর আগে। অজা গিরক চুম অ থাইলে বভ্রুবাহন সম্রাট অশোকর (খ্রী পূ ৩০৪-২৩২) দুইশ বছর জেঠাগ নাইলে সমসাময়িকগ। কিয়া বুললে, প্রাকৃত ভাষা এতারেও আদি, মধ্য বার অপভ্রংশ এ তিনো পরলে ভাগ করেছি। মহারাষ্ট্রি, শৌরসেনী, মাগধী বার পৈশাচী প্রাকৃত এতা মধ্যভাগরতা। অর্থাৎ মত দ্বিয়হানি আকসাটে চুম অনি নুৱারের। হয় বভ্রুবাহনর লগে আমার আপাবপা আহেছি ঔহান চুমহান নাইলে শৌরসেনীৎত আমার ভাষাহান আহেছে ঔহান চুমহান, নাইলে দ্বিয়হানির আকহানও চুম নাগই। জীবনর বেলি হমানির পরে গিরকে কিহান লেপকরিয়া যারগাতা চেইক।  আরাকৌ পাকরিক>>

বিষ্ণুপ্রিয়া মণিপুরী ভাষা বার সাহিত্য

ফরাসি দেশর পথে পথে

গোকুলানন্দ গীতিস্বামীঃ তর্পন আহান

উত্তম পুরুষ বার বিষ্ণুপ্রিয়া মণিপুরী

শিবরখোলে কতোদিন

সম্পাদকীয়

আধুনিক কর্ণ

হপনর বাজার বাউ

আন্দোলন বার আমি